মডেল একটিভিটি টাস্ক

[ New ] Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 | দশম শ্রেণী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Free

প্রিয় ছাত্র-ছাত্রীরা,

২৮ শে জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পরিষদ দ্বারা আবারো ফেব্রুয়ারী মাসে দশম শ্রেণীর জন্য Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 দেওয়া হয়েছে। দশম শ্রেণীর জন্য জানুয়ারী মাসে একটি মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক দেওয়া হয়েছিল। সেটা এখনো যারা করোনি তারা এই লিংক এ ক্লিক করে দশম শ্রেণীর জন্য মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্কটি করে এটা করে নিও।

এই পোস্টে দশম শ্রেণীর জন্য ফেব্রুয়ারী মাসের মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর প্রশ্ন উত্তর সহ আলোচনা করা হলো। তোমরা এটি তোমাদের খাতায় করার আগে অবশ্যই নিজে করার চেষ্টা করবে। তারপর অসুবিধা হলে তোমরা এই পোস্টের সাহায্য নিতে পারো। উত্তর গুলি খাতায় করার আগে অবশ্যই মন দিয়ে দেখে তারপর খাতায় করবে।

দশম শ্রেণীর সমস্ত বিষয়ের পাঠন পাঠনের জন্য আমাদের Youtube Channel ভিজিট করে Subscribe করে রাখতে পারো।

আমাদের ওয়েবসাইট আমার টার্গেট এ সবসময় যেকোনো শ্রেণীর Model Activity Task খুব দ্রুততার সাথে আপলোড করা হয়ে থাকে । পরবর্তীকালে যদি দশম শ্রেণীর জন্য নতুন কোনো মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক (Model Activity Task Class 10 Part 3) দেওয়া হয় আর সেটা সবার আগে পাওয়ার জন্য অবশ্যই আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল, ফেইসবুক পেজ Join করে রাখো।

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 All Subject

Table of Contents

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

দশম শ্রেণি

বাংলা (প্রথম ভাষা)

পূর্ণমান : ২০

Class 10 Model Activity Task Part 2

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 Bengali

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 বাংলা

১. ঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে লেখো : ১×৩=৩

১.১ ‘অসুখী একজনে’ কবিতার ভাষান্তর করেছেন—

(ক) শঙ্খ ঘোষ

(খ) মানবেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়

(গ) নবারুণ ভট্টাচার্য

(ঘ) অর্ঘ্যকুসুম দত্তগুপ্ত

উত্তর- (গ) নবারুণ ভট্টাচার্য

১.২ কবি পাবলো নেরুদার জন্মস্থান

(ক) চিলি

(খ) পেরু

(গ) ফ্রান্স

(ঘ) ইতালি

উত্তর- (ক) চিলি

১.৩ ‘সে জানত না’ – উদ্ধৃতাংশে ‘সে’ বলতে বোঝানো হয়েছে গির্জার এক

(ক) সন্ন্যাসিনীকে

(খ) একটি শিশুকে

(গ) একজন সাধারণ নারীকে

(ঘ) ঈশ্বরকে

উত্তর- (গ) একজন সাধারণ নারীকে

২. কম-বেশি ২০টি শব্দে উত্তর লেখো : ১×৩=৩

২.১ ‘আমি তাকে ছেড়ে দিলাম’ – কথক কাকে ছেড়ে দিলেন?

উত্তর- পাবলো নেরুদার রচিত “অসুখী একজন” কবিতায়  কবিতাটির কথক বৃহত্তর কর্মের আহ্বানে তিনি তার প্রিয়তমাকে ছেড়ে দিয়েছিলেন।

২.২ বছরগুলো নেমে এল তার মাথার ওপর। বছরগুলো কীভাবে নেমে এসেছিল?

উত্তর- পাবলো নেরুদার রচিত “অসুখী একজন” কবিতায় অপেক্ষারতা মেয়েটির মাথার উপর পরপর দুঃসহ  বোঝার মতো বছরগুলি একটার পর একটা পাথরের মতো নেমে এসেছিল।

২.৩ ‘তারপর যুদ্ধ এল’ – যুদ্ধ কীভাবে এসেছিল?

উত্তর- পাবলো নেরুদার রচিত “অসুখী একজন” কবিতায়  রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড় বিস্ফোরণ হলে যেমন পরিস্থিতি তৈরি হয় সর্বগ্রাসী যুদ্ধ ঠিক সেভাবেই অর্থাৎ রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মতো  যুদ্ধ এসেছিল।

৩. প্রসঙ্গ নির্দেশসহ কম-বেশি ৬০টি শব্দে উত্তর লেখো : ৩ x ৩=৯

৩.১ ‘সেই মেয়েটির মৃত্যু হলো না। – মেয়েটির মৃত্যু না হওয়ার তাৎপর্য কী?

উত্তর- উৎস:চিলিয়ান কবি পাবলো নেরুদার রচিত “অসুখী একজন” কবিতা থেকে উদ্ধৃত অংশটি গৃহীত ।

‘অসুখী একজন’  কবিতায় গভীরে নিহিত হয়েছে প্রেমের এক শাশ্বত মহিমা। যুদ্ধ বনাম প্রেম-এর মধ্যে প্রেম বড়ো এই বার্তা কবি ঘোষনা করতে অপেক্ষারত মেয়েটিকে শাশ্বত ভালোবাসার প্রতীক করে তুলেছেন। কবি বুঝিয়েছেন যুদ্ধ জগতের পার্থিব বস্তুকে যতই ধ্বংস করুক না কেন  ভালোবাসার মতো মানবিক মূল্যবোধকে কখনোই ধ্বংস করতে পারবে না । প্রেম হল অবিনশ্বর । মানুষের আগ্রাসন, সহিংসতার কাছে শাশ্বত প্রেমের কখনই মৃত্যু হয় না বলে কবি মনে করেছেন।

কবিতাটিতে দেখা যায় প্রীয়জন বিদায় নেওয়ার পর, মেয়েটির দীর্ঘদিন প্রতীক্ষার প্রহর গুনে গুনে অশেষ ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছিল সে  জানতোই না,  যে এই যাওয়াই কথকের শেষ যাওয়া। এরপর যুদ্ধ হয়, যুদ্ধের সর্বগ্রাসী অগ্নিশিখা প্রানবন্ত শহরকে শ্মশানে পরিণত করলেও, মেয়েটির মৃত্যু হয়নি তার ভালোবাসার মৃত্যু হয়নি। জগতে সবকিছুই নশ্বর, একমাত্র ভালোবাসা অবিনশ্বর।

৩.২ ‘সমস্ত সমতলে ধরে গেল আগুন’ – তার ফলে কী ঘটল?

ত্তর- কবি পাবলো নেরুদার রচিত “অসুখী একজন” কবিতা থেকে অংশটি গৃহীত হয়েছে।

রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড় স্বরূপ ভয়ঙ্কর যুদ্ধের আগমনের সমস্ত সমতলে ভয়াবহ যুদ্ধের অবস্থা সৃষ্টি হয়েছিল। সমতলে আগুন লাগার পরিনতি  হয়েছিল ভয়ঙ্কর। যুদ্ধের  আগুনে ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল কর্মচঞ্চল শহরের সবকিছু। সমাজে খারাপ সময় নেমে এলে দেবতা মানুষকে আশ্রয় দেয়, যুদ্ধের ভয়াবহ গ্রাস শান্ত-হলুদ দেবতাদেরও আশ্রয়চ্যুত করেছিল। মন্দির ভেঙে দেবতাদের মূর্তি মুহুর্তের মধ্যে টুকরো টুকরো হয়েছিল। সাধারণ মানুষের স্বপ্ন-সুখের আশ্রয় মিষ্টি বাড়ি, প্রিয় বাগান, বারান্দা, গাছপালা পছন্দের ফুলের বাগান, সাধের চিমনি, জলতরঙ্গ সবকিছু চূর্ণ বিচূর্ণ হয়েছিল। সবমিলিয়ে মানুষের সমস্ত সৃষ্টি যুদ্ধের দাবানলে জ্বলে কাঠ-কয়লায় ঘেরা শ্মশানে পরিণত হয়েছিল।

৩.৩ ‘যেখানে ছিল শহর’ – সেখানে কী কী ছড়িয়ে রইল? –

উত্তর- উৎস : পাবলো নেরুদার রচিত “অসুখী একজন” কবিতা থেকে অংশটি নেয়া হয়েছে।

রক্তের এক আগ্নেয়পাহাড়ের মতো ভয়ংকর যুদ্ধের আগমনে সমস্ত শহরে আগুন ধরেছিল। যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর প্রাণচঞ্চল শহরটি কাঠ কয়লায় ঘেরা শ্মশানে পরিণত হয়। যুদ্ধের ক্ষতর চিহ্ন সেই ধ্বংসাবশেষে  ছড়িয়ে থাকে দোমড়ানো লোহা, মৃত পাথরের মূর্তির বীভৎস মাথা আর রক্তের নিকষ কালো দাগ। যুদ্ধের প্রয়োজনে চলেছিল হত্যালীলা। শহরের প্রাণচঞ্চলতাকে স্তব্ধ করে শহরের বুক চিরে বয়েছিল রক্তের স্রোত।

৪. কম-বেশি ১৫০ শব্দে নীচের প্রশ্নটির উত্তর নিজের ভাষায় লেখো : ৫

‘অসুখী একজন’ কবিতার নামকরণের সার্থকতা বিচার করো।

উত্তর- নোবেলজয়ী চিলিয়ান কবি পাবলো নেরুদার ‘অসুখী একজন’ কবিতাটি জীবনের শাশ্বত, পদাবলী। স্প্যানিশ ভাষায় রচিত মূল নাম ”La Desdi Chada” বিশিষ্ট কবি নবারুণ কবিতাটির ভট্টাচার্য তরজমা করার সময় কবিতাটির নামকরণ করেন ‘অসুখী একজন’।

সাহিত্যে নামকরণের মধ্যে দিয়েই রচনার মূল ভাবসত্য ফুটে ওঠে । তাই সাহিত্যে  নামকরণ  খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কবিতায় দেখা যায় এক যোদ্ধা যুদ্ধের কারণেই বাসভূমি ছেড়ে, প্রিয়জনকে অপেক্ষারত  করিয়ে  চলে গেছেন বহুদূরের যুদ্ধক্ষেত্রে। এমন ভয়ংকর যুদ্ধের পরিণাম যে মৃত্যু এটা তিনি জানতেন  বলেই ফিরে আসার কোনো নিশ্চয়তা  রাখেননি।

তবুও তার প্রিয় মানুষটি ফিরে আসার অপেক্ষায় ছিলেন।সময়ের সাথে সাথে প্রিয়জনের বিরহে ক্ষত-বিক্ষত হন। এমন সময় আসে যুদ্ধ। বিধ্বস্ত হয় জনপদ। শহর পরিণত হয় ধ্বংসস্তূপে কিন্তু মেয়েটির মৃত্যু হয় না। প্রিয় মানুষটি হয়তো ফিরে আসবে এই প্রত্যাশায় বসে থাকে মেয়েটি। সমগ্র কবিতায় দেখা যায় প্রিয়-বিরহে থাকা মেয়েটির বিষন্নতা, একাকিত্বের করুন সুর। বিরহের আগুনে পুড়তে পুড়তে চোখে অন্তহীন প্রতিক্ষা নিয়ে প্রিয়জনের আগমনের আশা আকাঙ্খায় পথ চেয়ে থাকে মেয়েটি। প্রতিক্ষারতা মেয়েটির অসুখী হৃদয়ের হৃদয়বেদনাই ধ্রুপদ হয়ে বাজতে থাকে পাঠকের মনে। তাই সবদিক দিয়ে বিচার করে এই কবিতাটির নামকরণটি সর্বাংশে সার্থক।

Class 10 Model Activity Task Part 2

Model Activity Task

Class -X

Full Marks: 20

English (Second Language)

Class 10 Model Activity Task Part 2

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 English

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 ইংলিশ

Read the passage given below and answer the questions that follow:

Three adult elephants were electrocuted at Binpur in Jhargram when one of them came in contact with a wire carrying 11,000 KV of power and the other two tried to rescue her. The elephants were crossing a paddy field at around 1.30 am on Wednesday, when the accident took place. Sources said the elephants-two females and a male-were part of a herd of thirty that had been roaming the forests of West Midnapur and Jhargram for the past few weeks.

Late on Tuesday night, the elephants had been chased by villagers to prevent the herd from entering Mohanpur village. After being chased away the herd entered Binpur. First, an adult female elephant’s head touched the wire. The two other elephants touched her in an attempt to help her out, A villager, named Sambhu Mahato, said residents of Binpur had contacted local office of the West Bengal State Electricity Distribution Company Ltd, but got no response.

Activity 1

Choose the correct alternative to complete the following sentences:    [1×3=3]

(i) The number of elephants that died were _____________

(a) thirty

(b) three

(c) four

(d) thirteen

Ans: (b) three

(ii) The place Binpur is in _____________

(a) West Midnapur

(b) Mohanpur

(c) Jhargram

(d) Kolkata

Ans: (c) Jhargram

(iii) The wire carried a power of _______________

(a) 10,000 KV

(b) 1,000 KV

(c) 11,000KV

(d) 13,000 KV

Ans: (c) 11,000KV

Activity 2

Each of the following sentences is either “True’ or ‘False”. Write ‘T’ for ‘True’ and ‘F’ for ‘False” in the right hand side. Also pick out suitable line from the text in support of your answer: [(1+1)x 2=4]

(i) There were thirty-three elephants in the herd.

Ans: F

Supporting Sentence:  The elenphants-two females and a male were part of a herd of thirty.

(ii) The residents of Mohanpur contacted local office of the West Bengal State Electricity Distribution Company Ltd.

Ans: F

Supporting Sentence: residents of Binpur had contacted local office of the West Bengal State Electricity Distribution Company Ltd.

Activity 3

Fill in the blanks with appropriate articles and prepositions:        [1×3=3]

(i)I was sitting __________ a bench in a park. I heard __________ loud cry. So, I ran _________ that direction.

Ans: I was sitting on a bench in a park. I heard a loud cry. So, I ran towards that direction.

Activity 4

Write a paragraph within 100 words on “Myself”. [10]

Use the following points:

[ introduction- qualities you like in yourself-qualities you want to improve-conclusion ]

Ans:

MY SELF

My name is Dipika Barman. I’m from Kolkata. I am 16 years old and read in class 10th standard. My school name is Sodepur girls high school. I go to school by bus. It is about 5 km away from my house. My brother and sister also study in the same school. I am punctual and disciplined, which is why I am dear to all teachers in school. I am also good at writing, as well as interested in drawing and singing.

I enjoy taking part in cultural events, and every time I do, I sing songs and act in small plays. We have a joint family where my grandparents, uncle aunt cousins live in the same house. We love each other very much. My parents are the most wonderful people in the world to me. They adore each other. They motivate and inspire me to study. Every event we celebrate together, we enjoy it, and we have a good time. I feel so blessed to have this family.

Class 10 Model Activity Task Part 2

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

দশম শ্রেণি

ইতিহাস

পূর্ণমান : ২০

Class 10 Model Activity Task Part 2

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 History

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 ইতিহাস

১. শূন্যস্থান পূরণ করো : ১x8 = 8

(ক) কলকাতা মাদ্রাসা গড়ে ওঠে __________________ খ্রিস্টাব্দে।

উত্তর- ১৭৮১

(খ) স্কুল বুক সোসাইটি প্রতিষ্ঠা করেন _________________ ।

উত্তর- ডেভিড হেয়ার

(গ) কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য ছিলেন __________________ ।

উত্তর- স্যার জেমস উইলিয়াম কোলভিল

(গ) স্বামী বিবেকানন্দ বিশ্বধর্ম সম্মেলনে যোগ দিয়েছিলেন __________________ খ্রিস্টাব্দে।

 উত্তর- ১৮৯৩

২. স্তম্ভ মেলাও : ১ x 8=8

ক-স্তম্ভ  খ-স্তম্ভ  
অ্যাকাডেমিক অ্যাসোসিয়েশন  
তত্ত্ববোধিনী সভা  
হুতোম প্যাঁচার নকশা  
গ্রামবার্ত্তা প্রকাশিকা  
দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর  
হরিনাথ মজুমদার  
ডিরোজিও  
কালীপ্রসন্ন সিংহ    

উত্তর-

ক-স্তম্ভ  খ-স্তম্ভ  
অ্যাকাডেমিক অ্যাসোসিয়েশন  
তত্ত্ববোধিনী সভা  
হুতোম প্যাঁচার নকশা  
গ্রামবার্ত্তা প্রকাশিকা  
ডিরোজিও  
দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর  
কালীপ্রসন্ন সিংহ  
হরিনাথ মজুমদার  

৩. দুই-তিনটি বাক্যে উত্তর দাও : ২ x ২=৪

(ক) লালন ফকির স্মরণীয় কেন?

উত্তর- লালন ফকির বাউল সাধনার একজন প্রধান গুরু ছিলেন। তিনি  শ্রেষ্ঠ বাউলগান রচয়িতা ও গায়ক ছিলেন। উনিশ শতকে বাংলায় সর্বধর্মসমন্বয়ের ক্ষেত্রে যে সমস্ত উদ্যোগ লক্ষ করা গিয়েছিল লালন ফকিরের অবদান সেখানে গুরুত্বপূর্ণ । তিনি কোনো ধর্ম মানতেন না জাতিভেদ প্রথা মানতেন না। দুই হাজার গান রচনা করেন তিনি। তাঁর  মর্মস্পর্শী গানগুলি মানবজীবনের রহস্য, আদর্শ ও মানবতাবাদী দৃষ্টিভঙ্গি সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে ধর্মসমন্বয়, সহনশীলতা, সদাচার ও নৈতিকতা প্রচার করে প্রচার করেছিলেন।

(খ) পাশ্চাত্য শিক্ষাবিস্তারে বেথুনের ভূমিকা কী?

উত্তর- বাংলা তথা ভারতবর্ষে স্ত্রীশিক্ষা বিস্তারের জন এলিয়ট ড্রিঙ্কওয়াটারের প্রতিষ্ঠিত বেথুনের অবদান উল্লেখযোগ্য । তিনি বাংলার নারীজাগরণের সূত্রপাত করেন। বেথুন কলেজ হল ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম মহিলা কলেজ। এই দেশের নারীদের পাশ্চাত্য শিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলার উদ্দেশ্যে ১৮৪৯ খ্রিস্টাব্দে বেথুন সাহেব ‘নেটিভ ফিমেল স্কুল’ নামে হিন্দু বালিকা বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে নারী শিক্ষার বিস্তারে বিশেষ ভুমিকা পালন করেন।

৪. সাত-আটটি বাক্যে উত্তর দাও : ৪ x ২=৮

(ক) ব্রাহ্ম সমাজে কেন বিভাজন দেখা দিয়েছিল?

উত্তর- ১৮৫৮ খ্রিস্টাব্দে কেশবচন্দ্র সেন ব্রাহ্মসমাজে যোগদান করার পর থেকেই ধীরে ধীরে তিনি তরুণ ব্রাহ্মদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠছিলন। অল্প সময়ের মধ্যেই তাঁর অনুগামীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। তাঁর কারনে ব্রাহ্মসমাজ সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছায়। কিন্তু পরবর্তীকালে তরুণ কেশবচন্দ্রের আধুনিক চিন্তাভাবনার সাথে  দেবেন্দ্রনাথের রক্ষণশীল চিন্তার মতবিরোধ সৃষ্টি হয়।এই মতবিরোধকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মসমাজে ভাঙ্গন ধরে।

ভাঙ্গনের কারণ:- ব্রাহ্মসমাজে বিভাজন সৃষ্টি হাওয়ার পশ্চাতে ছিল নানা কারণ

প্রথমত:- কেশবচন্দ্র সেন ব্রাহ্ম উপাসনা পদ্ধতি ও ব্রাহ্ম ধর্মের মূল তত্ত্বগুলিকে সহজ-সরল যুগোপযোগী করে তুলেছিলেন । কিন্তু দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর মনে করতেন ব্রাহ্মধর্ম হল হিন্দু ধর্মের বিশুদ্ধ রূপ। তাই তিনি ব্রাহ্মধর্মকে যুগোপযোগী করে তোলাকে পছন্দ করেননি। এটি ছিল বিভাজন হওয়ার অন্যতম মুল কারন ।

দ্বিতীয়ত :-তরুণ নেতা কেশবচন্দ্র সেন চেয়েছিলেন  ব্রাহ্মধর্মকে  কেন্দ্র করে সমাজের নানাবিধ কুসংস্কার এর প্রতিবাদ করতে।কিন্ত দেবেন্দ্রনাথ হিন্দুধর্মের বিরুদ্ধে সমাজ সংস্কার সনাতনপন্থী হয়ে মেনে নিতে পারেন নি।

নানান বিষয়কে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মসমাজের দুই প্রধান নেতার মত পার্থক্য বেড়ে গেলে ব্রাহ্মসমাজ দুই শ্রেণিতে বিভক্ত হয়ে যায়। কেশবচন্দ্র সেন ১৮৬৬ খ্রিস্টাব্দে ‘ভারতবর্ষীয় ব্রাহ্মসমাজ প্রতিষ্ঠা করেন। দেবেন্দ্রনাথ এবং অনুগামীরা সমাজ ‘আদি ব্রাহ্মসমাজ’ নামে পরিচিতি লাভ করেন।

(খ) ‘বাংলার নবজাগরণ’-এর সীমাবদ্ধতা আলোচনা কর।

উত্তর- উনিশ শতকে পাশ্চাত্য শিক্ষা ও সভ্যতার সংস্পর্শে আসার দরুন  মধ্যবিত্ত বাঙালি সমাজে যে এক  বৌদ্ধিক আলোড়ন  সে সেটিই বঙ্গীয় নবজাগরণ  নামে পরিচিত।

উনিশ শতকে ঘটে যাওয়া ‘বঙ্গীয় নবজাগরণ -এর পরিণামে সমাজ,শিক্ষা, সাহিত্য,বিজ্ঞানচর্চা সবক্ষেত্রেই  ব্যাপক পরিবর্তন এলেও এই নবজাগরণ বেশ কয়েকটি সীমাবদ্ধতার  ছিল।

১) উচ্চশ্রেণির আন্দোলন : উনিশ শতকের বাংলার নবজাগরণকে অনেকে এলিটিস্ট আন্দোলন নামে অভিহিত করতেন। তাদের মতে, এই আন্দোলন ছিল  মুষ্টিমেয় উচ্চবিত্ত ও উচ্চশিক্ষিত লোকেদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ । এরা নিজেদের স্বার্থের জন্য ইংরেজ সরকারের প্রতি বিশ্বস্ত থাকত। এরা নিজেদের গোষ্ঠীস্বার্থ ভুলে কখোনও বৃহত্তর সমাজের মঙ্গলচিন্তা করেনি।ফলে এই নবজাগরণের প্রভাব শহর গ্রামের সাধারণ শ্রমিক, কৃষক মানুষদেরকে সেভাবে প্রভাবিত করতে পারেনি।

২) শহুরে আন্দোলন : এই নবজাগরণ ছিল শহরের শিক্ষিত, চাকুরিজীবী ও ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে সীমাবদ্ধ। গ্রামের সাধারণ মানুষদের কাছে এর কোনো প্রভাব ছিল না।

৩) ইউরোপীয় নবজাগরণ : ইউরোপীয় নবজাগরণের ক্ষেত্রে ফ্লোরেন্স শহর যে ভূমিকা পালন করেছিল বাংলার নবজাগরণে কলকাতা সেই ভুমিকা পালন করতে পারেনি। ইতালির ফ্লোরেন্স ছিল স্বাধীন নগরী। কিন্তু কলকাতা  ইংরেজদের ঔপনিবেশিক কেন্দ্র হওয়ায় এই নবজাগরণের আন্দোলন ব্রিটিশ নির্ভর হয়ে উঠেছিল।

৪) বৈপ্লবিক পরিবর্তনে ব্যর্থ : এই সংস্কার আন্দোলন ছিল সামাজিক। এই আন্দোলন বৈপ্লবিক পরিবর্তনের কথা বলা হয়নি। এই সময়ের সংস্কারকরা ধর্ম ও সমাজকে অবিকৃত রেখে কিছু সংস্কার করতে চেয়েছিলেন মাত্র। এমনকি তাঁরা কোম্পানির সাম্রাজ্যবাদী চরিত্র সম্পর্কেও উদাসীন ছিলেন।

মন্তব্য:- পরাধীন দেশে গড়ে ওঠা নবজাগরণ নানা প্রকার ত্রুটি, সীমাবদ্ধতার সম্মুখীন হবে তা অস্বাভাবিক নয়। নানা ত্রুটি ও সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও উনিশ শতকে বাংলায় যে নবজাগরণ তৈরি হয়েছিল তার গুরুত্ব ছিল। এই নবজাগরণ থেকেই পরবর্তীকালে জাতীয়তাবাদী  আন্দোলন শুরু হয়েছিল।

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

দশম শ্রেণি

ভূগোল

পূর্ণমান : ২০

Class 10 Model Activity Task Part 2

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 Geography

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 ভূগোল

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখো :    ১×৩ =৩

১.১ বায়ুমণ্ডলের যে স্তরে প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল আবহাওয়া লক্ষ করা যায় সেটি হলো –

(ক) আয়নোস্ফিয়ার

(খ) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার

(গ) এক্সোস্ফিয়ার

(ঘ) ট্রপোস্ফিয়ার।

উত্তরঃ ১.১ ট্রপোস্ফিয়ার।

১.২ যে বায়ুকে তুষার ভক্ষক বলা হয় তা হলো –

(ক) লু

(খ) আঁধি

(গ) চিনুক

(ঘ) খামসিন।

উত্তরঃ ১.২ চিনুক।

১.৩ উপক্রান্তীয় উচ্চচাপ বলয় অবস্থান করে –

(ক) ৬০° ৭০° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে

(খ) ২৫°৩৫° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে

(গ) ১০০- ২০° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে

(ঘ) ৭০-৮০° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে।

উত্তরঃ ১.৩ ২৫°-৩৫° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে।

২.১ বাক্যটি সত্য হলে ‘ঠিক’ এবং অসত্য হলে ‘ভুল’ লেখো:       ১×৩=৩

২.১.১ কোনো নির্দিষ্ট আয়তনের বায়ুতে যে পরিমাণ জলীয় বাষ্প থাকে তাকে ঐ বায়ুর আপেক্ষিক আর্দ্রতা বলে।

উত্তরঃ ২.১.১ ভুল

২.১.২ দক্ষিণ গোলার্ধে স্থলভাগের বিস্তার বেশি হওয়ার কারণে পশ্চিমা বায়ু অপ্রতিহত গতিতে প্রবাহিত হয়।

উত্তরঃ ২.১.২  ভুল

২.১.৩ সমুদ্রবায়ু দিনের বেলায় প্রবাহিত হয়।

উত্তরঃ ২.১.৩ ঠিক

২.২ একটি বা দুটি শব্দে উত্তর দাও :    ১x২ = ২

২.২.১. একই উন্নতাযুক্ত স্থানগুলিকে মানচিত্রে যে রেখা দ্বারা যুক্ত করা হয় তাকে কী বলে?

উত্তরঃ ২.২.১. সমোষ্ণ রেখা

২.২.২. কোন যন্ত্রের সাহায্যে বায়ুর চাপ পরিমাপ করা হয়?

উত্তরঃ ২.২.২. ব্যারোমিটার

৩. নীচের প্রশ্নগুলির সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :     ২ x ২=8

৩.১ কুয়াশাকে কেন অধঃক্ষেপণ বলা হয় না?

উত্তরঃ অধঃক্ষেপণের সময় জলীয় বাষ্পে ভরা বায়ু ঊর্ধ্বগামী হয় এবং অতিরিক্ত শীতলতার কারণে ঘনীভূত হয় ও জলকণা বা তুষারকণা আকারে মাধ্যাকর্ষণ শক্তির টানে ভূপৃষ্ঠে নেমে আসে। কিন্তু কুয়াশা কোন প্রকার ঊর্ধ্বগামী বায়ু দ্বারা সৃষ্টি হয় না। শীতকালে রাতের দিকে ভূপৃষ্ঠ তাপ বিকিরণ করে ঠান্ডা হলে ভূপৃষ্ঠ সংলগ্ন বায়ুও সেই সময় ঠান্ডা হয়। তখন ওই বায়ুর তাপমাত্রা শিশিরাঙ্কে পৌঁছালে জলীয় বাষ্প ঘনীভূত হয় ও ভাসমান ধূলিকণাকে কেন্দ্র  করে ভূমি সংলগ্ন অংশে ভেসে বেড়ায়। কুয়াশা উপর থেকে অধঃক্ষিপ্ত হয় না সেই কারনে  এটিকে অধঃক্ষেপণ  বলা হয় না।

৩.২ বিশ্ব উষ্ণায়নের দুটি প্রভাব উল্লেখ করো।

উত্তরঃ বিশ্ব উষ্ণায়নের  প্রভাবগুলি হল-

i) বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলে  অ্যান্টার্কটিকা ও গ্রিনল্যান্ডের অসংখ্য হিমবাহের বরফ গলতে শুরু করেছে এবং  এর ফলে পার্বত্য হিমবাহ বরফের আয়তন ক্রমশ কমছে ও বরফ গলতে শুরু করেছে। যেমন- হিমালয়ের গঙ্গোত্রী,যমুনোত্রী  হিমবাহ।

ii) পৃথিবীর উষ্ণতা ক্রমশ বেড়ে যাওয়ার জন্য শীতের তুলনায় গ্রীষ্মের তাপমাত্রা  বৃদ্ধি পাচ্ছে, প্রায় প্রতিটি ঋতু অনিয়মিত আগমন হচ্ছে ও বিলম্বিত হচ্ছে, ঘূর্ণিঝড়ের পরিমান বাড়ছে ও তীব্রতা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং  কোন কোন জায়গায় অনাবৃষ্টির ফলে খরার প্রাদুর্ভাব বাড়ছে।

৪. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও :    ৩×১=৩

কীভাবে কোনো একটি স্থানের উচ্চতা সেই অঞ্চলের বায়ুমণ্ডলের তাপমাত্রাকে প্রভাবিত করে?

উত্তরঃ বায়ুমণ্ডল সূর্যকিরণের  ফলে সরাসরি উত্তপ্ত হয় না। সূর্য থেকে বিকিরণ পদ্ধতিতে আগত তাপশক্তি বায়ুমণ্ডলের মধ্য দিয়ে এলেও বায়ুমণ্ডলকে উত্তপ্ত না করে প্রথমে কঠিন ভূ-পৃষ্ঠকে উত্তপ্ত করে। পরে ঐ উত্তপ্ত ভূ-পৃষ্ঠের সংস্পর্শে আসার ফলে ভূ-পৃষ্ঠ সংলগ্ন বায়ুস্তর উত্তপ্ত হয় এবং ঐ তাপ ধীরে ধীরে ওপরের বায়ুস্তরগুলিতে সঞ্চারিত হতে থাকে। তাই নীচের বায়ুস্তরের বায়ুর উষ্ণতা  বেশী  হয়  এবং যত ওপরে ওঠতে থাকি ততই উচ্চতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বায়ুমণ্ডলের তাপমাত্রা হ্রাস পেতে থাকবে।প্রতি 1 কিলোমিটার উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য 6.4° সেলসিয়াস হারে বায়ুমণ্ডলের তাপমাত্রা কমতে থাকে, একে উষ্ণতা হ্রাসের গড় বা Lapse rate of temperature বলে।   একই অক্ষাংশে অবস্থিত হলেও উচ্চস্থান অপেক্ষাকৃত শীতল হয় ।

এই কারণে সমুদ্র তল থেকে উচ্চতা বাড়ার সাথে সাথে তাপমাত্রা কমতে থাকে।  সেই কারনে কলকাতার তুলনায় দার্জিলিং এবং দিল্লির তুলনায় সিমলার উষ্ণতা অনেক কম হয়।

৫. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও :

চিত্রসহ উন্নতার তারতম্যের ভিত্তিতে বায়ুমণ্ডলের বিভিন্ন স্তরের সংক্ষিপ্ত বিবরণ দাও।

উত্তরঃ উষ্ণতার ভিত্তিতে বায়ুস্তর : উষ্ণতার ভিত্তিতে ছয় ভাগে ভাগ করা যায়:-তাপমাত্রার তারতম্য অনুসারে বায়ুমণ্ডলকে ছয়টি স্তরে ভাগ করা যায় — (1) ট্রপোস্ফিয়ার (2) স্ট্রাটোস্ফিয়ার, (3) মেসোস্ফিয়ার, (4) থার্মোস্ফিয়ার, (5)এক্সোস্ফিয়ার  (6) ম্যাগনেটোস্ফিয়ার।

image 9
  • ট্রপোস্ফিয়ার :-

(i) ভূপৃষ্ঠ থেকে 18 কিলোমিটার পর্যন্ত ঊর্ধ্বের বায়ুস্তরকে  ট্রপোস্ফিয়ার বলে। মেরু অঞ্চলে এর উচ্চতা প্রায় ৪ কিমি। বায়ুমণ্ডলের এই স্তরেই আমরা বাস করি। (ii) এই স্তরের বায়ুতে ধূলিকণা, জলীয় বাষ্প, কুয়াশা, মেঘ প্রভৃতি থাকে। এই জন্য এই স্তরে ঝড়, বৃষ্টি, শিলাবৃষ্টি, বজ্রপাত প্রভৃতি ঘটনাগুলি ঘটতে দেখা যায়। বায়ুমণ্ডলের মোট গ্যাসীয় ভরের প্রায় 75% গ্যাসীয় পদার্থ এই স্তরে থাকায় এখানে বায়ুর ঘনত্ব ও বায়ুচাপ সবচেয়ে বেশি। ট্রপোস্ফিয়ারের ঊর্ধ্বে 3 কিমি পর্যন্ত অংশে উষ্ণতার হ্রাসবৃদ্ধি কিছুই হয় না বলে একে ট্রপোপজ বলে।

  • স্ট্রাটোস্ফিয়ার:-

ট্রপোস্ফিয়ারের উপরের স্তর হল স্ট্রাটোস্ফিয়ার । 20থেকে 50 কিমি উচ্চতা পর্যন্ত বিস্তৃত এই স্তর । এই স্তরে উচ্চতা বৃদ্ধির সঙ্গে উষ্ণতা হ্রাস পায়। এই স্তরে আবহাওয়া শান্ত থাকে তাই একে শান্তমন্ডল বলে। এই স্তরে ওজোন গ্যাসের অস্তিত্ব লক্ষ করা যায় তাই একে ওজনোস্ফিয়ার বলে।

  • মেসোস্ফিয়ার :-

স্ট্রাটোস্ফিয়ার এর উপরের স্তর মেসোস্ফিয়ার। ৪০ কিমি উচ্চতা পর্যন্তকিমি উচ্চতাযুক্ত স্থান পর্যন্ত এই স্তর রয়েছে। এই স্তরে উষ্নতা কমতে থাকে, । এই স্তরে বায়ুর তাপমাত্রা সবচেয়ে কম থাকে (কমবেশি-93 সেলসিয়াস)।মহাকাশ থেকে পৃথিবীর দিকে ছুটে আসা উল্কা এই স্তরের মধ্যে এসে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

  • আয়নোস্ফিয়ার :-

মেসোস্ফিয়ার এর উপরের অংশ আয়নোস্ফিয়ার 180 থেকে 500 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত। উচ্চতা বৃদ্ধির সঙ্গে উষ্ণতা হ্রাস পায়। বেতারতরঙ্গ এখানে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে পৃথিবীতে ফিরে আসে।এই স্তরের উপাদানগুলি আয়নিত অবস্থায় থাকে বলে ভূপৃষ্ঠে সৃষ্ট বেতার তরঙ্গগুলি এই আয়নোস্ফিয়ারে প্রতিহত হয়ে, আবার পৃথিবীতে ফিরে আসে, ফলে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে বেতার সংযোগ রক্ষা করা যায়।

  • এক্সোস্ফিয়ার :- 

আয়নমণ্ডলের ওপরের দিকে 600-1,500 কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত হালকা বায়ুস্তরকে বহিঃমণ্ডল বা এক্সোস্ফিয়ার বলে। এই স্তরে হাইড্রোজেন ও হিলিয়াম গ্যাসের প্রাধান্য দেখা যায়। এখানে বায়ুর সব উপাদানই আয়নিত অবস্থায় থাকে।

  • ম্যাগনেটোস্ফিয়ার :-

বহিঃমণ্ডলের ওপরে 1,500-10,000 কিমি উচ্চতা পর্যন্ত বিস্তৃত প্রায় বায়শূন্য অঞ্চলটিকে চৌম্বকমণ্ডল বা ম্যাগনেটোস্ফিয়ার বলে। এই স্তরে বায়ুমণ্ডলকেবেন্টন করে একটি প্রোটন ও ইলেকট্রনের চৌম্বকক্ষেত্র আছে।

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

দশম শ্রেণি

জীবনবিজ্ঞান

পূর্ণমান : ২০

Class 10 Model Activity Task Part 2

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 Life Science

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 জীবন বিজ্ঞান

১. প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে তার ক্রমিক সংখ্যাসহ বাক্যটি সম্পূর্ণ করে লেখো :১×৩=৩

১.১ দেহের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণের সঙ্গে সম্পর্কিত মস্তিষ্কের অংশটি শনাক্ত করো –

(ক) গুরুমস্তিস্ক

(খ) লঘুমস্তিষ্ক

(গ) সুষুম্নাশীৰ্ষক

(ঘ) থ্যালামাস

উত্তর- (খ) লঘুমস্তিষ্ক

১.২ নীচের যে জোড়টি সঠিক তা নির্বাচন করো

(ক) কবজা অস্থিসন্ধি – কাঁধ

(খ) রোটেটর পেশি – ট্রাইসেপস

(গ) বল ও সকেট অস্থিসন্ধি – হাঁটু

(ঘ) পেশি – বাইসেপস

উত্তর- (ঘ) পেশি – বাইসেপস

১.৩ মানবদেহে সুষুম্না স্নায়ুর সংখ্যা স্থির করো –

(ক) ১১ জোড়া

(খ) ২১ জোড়া

(গ) ৩১ জোড়া

(ঘ) ৪১ জোড়া

উত্তর- (গ) ৩১ জোড়া

২. শূন্যস্থান পূরণ করো : ১×৪=৪

২.১ লঘু মস্তিষ্কের গোলার্ধ দুটি _________________ দ্বারা যুক্ত থাকে।

উত্তর-  ভারমিজ

২.২ কর্নিয়া __________________মাধ্যম হিসেবে কাজ করে।

উত্তর- প্রতিসারক

২.৩ সাইকেল চালানো __________________ প্রতিবর্ত ক্রিয়ার একটি উদাহরণ।

উত্তর- অর্জিত

২.৪ প্যারামেসিয়াম ___________________ সাহায্যে গমন করে।

উত্তর- সিলিয়ার

৩. দুই-তিন বাক্যে উত্তর দাও : ২x৪=৮

৩.১ মাছের গমনে মায়োটম পেশির ভূমিকা বিশ্লেষণ করো।

উত্তর- মায়োটোম পেশির ভূমিকা :-মাছের নমনীয় মেরুদণ্ডের দু-পাশে লেজের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত অক্ষ বরাবর অসংখ্য ‘V’ আকৃতির মায়োটোম পেশি থাকে। এই মায়োটোম পেশিগুলির তরঙ্গায়িত সংকোচন মাছের দেহের অগ্রপ্রান্ত থেকে পশ্চাদ প্রান্ত পর্যন্ত প্রবাহিত হওয়ার ফলে মেরুদণ্ড দু-পাশে পর্যায়ক্রমে আন্দোলিত হয় এবং এর ফলে  মাছ সামনের দিকে এগিয়ে যায়। পেশি যেদিকে সংকুচিত হয় মেরুদণ্ড সেদিকে বেঁকে যায়। ওই বিপরীত দিকের পেশি প্রসারিত থাকে। মায়োটোম পেশিগুলির পর্যায়ক্রমে সংকোচন ও প্রসারণের জন্য মেরুদণ্ডটিও পর্যায়ক্রমে দু-পাশে আন্দোলিত হতে থাকে, ফলে মাছ সামনের দিকে অগ্রসর হতে থাকে।

৩.২ সাইন্যাপসের কাজ ব্যাখ্যা করো।

উত্তর- সাইন্যাপস-এর কাজ : সাইন্যাপস স্নায়ুস্পন্দনকে এক নিউরোন থেকে অপর এক নিউরোনে প্রবাহিত করে। যখন পূর্ববর্তী নিউরোন থেকে স্নায়ুস্পন্দন ওই নিউরোনের অ্যাক্সনের শেষপ্রান্তে আসে তখন সাইন্যাপটিক ভেসিকলগুলি বিদীর্ণ হয়ে অ্যাসিটাইলকোলিন নিঃসৃত করে, যা স্নায়ুস্পন্দনকে পরবর্তী নিউরোনের ডেনড্রাইটের মধ্যে প্রবাহিত করে দেয়। সাইন্যাপসের বিশেষ গঠনের জন্য এখানে স্নায়বিক উদ্দীপনা প্রবাহের অভিমুখ সর্বদাই একমুখী হয়। এই কারণে সাইন্যাপসকে শারীরবৃত্তীয় ভালভ বলে।

৩.৩ “কাছের বস্তু দেখার ক্ষেত্রে চোখের লেন্সের ফোকাস দৈর্ঘ্যের পরিমার্জন ঘটে” – বক্তব্যটির যথার্থতা ব্যাখ্যা করো।

উত্তর- কাছের বস্তু দেখার ক্ষেত্রে সিলিয়ারি পেশির সংকোচন চোখের লেন্সের বক্রতা বৃদ্ধি পায়, লেন্স পুরু হয় এবং লেন্সের ফোকাস দৈর্ঘ্য হ্রাস পায়।

১. 6 মিটার বা 20 ফুটের কাছের বস্তু দেখার জন্য চোখে সর্বাধিক টেনশন সৃষ্টি হয়।

২. এই অবস্থায় সিলিয়ারি পেশি  সংকুচিত হয় এবং কোরয়েড স্তরকে সামনের দিকে টেনে আনে।

৩. এর ফলে সাসপেনসারি লিগামেন্ট আলগা হয় এবং লেন্সের বক্রতা বেড়ে যায় অর্থাৎ, লেন্স বেশি উত্তল হয়।

৪. অ্যাকুয়াস হিউমরের দিকে লেন্সের এইরূপ বক্রতা বেড়ে যাওয়ায় লেন্সে প্রতিসরণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

৩.৪ মায়োপিয়ার কারণ ও প্রয়োজনীয় সংশোধনী ব্যবস্থা আলোচনা করো।

উত্তর- যে দৃষ্টিতে দুরের দৃষ্টি ব্যাহত হয়, কিন্তু নিকটের দৃষ্টি ঠিক থাকে, তাকে মায়োপিয়া বা নিকটদৃষ্টি বলে। চক্ষুগোলকের ব্যাস স্বাভাবিকের তুলনায় বর্ধিত হওয়ার ফলে বস্তুর প্রতিবিম্ব রেটিনার সামনে পড়ে, ফলে দূরের বস্তু দেখা যায় না। এই ত্রুটি সংশোধনের জন্য অবতল লেন্স(concave lens) যুক্ত চশমা ব্যবহার করতে হবে।

৪. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও : ৩ + ২ =৫

৪.১ “নানা কারণে জীবের গমন ঘটে” – কারণগুলি আলোচনা করো। হরমোন ও স্নায়ুতন্ত্রের দুটি পার্থক্য উল্লেখ করো।

উত্তর- যে সকল উদ্দেশ্য সাধনের লক্ষ্যে প্রাণীরা গমন হয় সেগুলি  নিম্নরুপ-

(i) খাদ্যের খোজ :-খাদ্য সংগ্রহের জন্য প্রাণীরা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে গমন করে থাকে।

(ii) আত্মরক্ষা :- আত্মরক্ষার তাগিদে এক স্থান থেকে আরেক স্থানে গমন করে।

(iii) বাসস্থান :- উপযুক্ত বাসস্থান এর জন্য স্থানান্তরে  গমন করে।

(iv) প্ৰজনন :- প্ৰজনন পক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য ও স্থানান্তরে গমন করে।

(v) একটি প্রাণী অনেকগুলি শাবকের জন্ম দিলে শাবকগুলি বড়ো হয়ে খাদ্য ও আশ্রয়ের জন্য বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়ে।

(vi) অনুকূল পরিবেশের সন্ধানে প্রাণীদের গমন হয়।

হরমোন  স্নায়ুতন্ত্র  
1. হরমোন জীবদেহে রাসায়নিক সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করে।  1. স্নায়ুতন্ত্র প্রাণীদেহে ভৌত সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করে।  
2. হরমোনের কাজ মন্থর কিন্তু সুদূরপ্রসারী।  2. স্নায়ুতন্ত্রের কাজ দ্রুত কিন্তু তাৎক্ষণিক।  
Class 10 Model Activity Task Part 2

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

পূর্ণমান : ২০

দশম শ্রেণি

ভৌতবিজ্ঞান

Class 10 Model Activity Task Part 2

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 Physical Science

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 ভৌতবিজ্ঞান

১. ঠিক উত্তর নির্বাচন করো : ১×৩ = ৩

১.১ SATP বলতে যে উন্নতা বোঝায় তার মান নিকটতম পূর্ণসংখ্যায় –

(ক) 263K

(খ) 273K

(গ) 298K

(ঘ) 373K

উত্তর- (গ) 298K

image 10

(ক) g     

(খ) g mol    

(গ) g/mol      

(ঘ) mol-1

উত্তর- (গ) g/mol      

১.৩ কোনো আদর্শ গ্যাসের ক্ষেত্রে স্থির  উষ্ণতা ও স্থির ভর হলে বয়েলের সূত্রানুসারে চাপ ও আয়তনের লেখচিত্রটি হবে –

(ক) মূলবিন্দুগামী সরলরেখা

(খ) উপবৃত্তের অংশ

(গ) পরাবৃত্তের অংশ

(ঘ) আয়তনের অক্ষের সমান্তরাল সরলরেখা

উত্তর- (গ) পরাবৃত্তের অংশ

২. নীচের বাক্যগুলি সত্য অথবা মিথ্যা তা নিরূপণ করো : ১×৩ = ৩

২.১ একটি গ্যাস অণুর আয়তন = (গ্যাস দ্বারা অধিকৃত আয়তন  গ্যাস অণুর সংখ্যা)

উত্তর- মিথ্যা

2.2  12C = 12.0000 u-এর পরিবর্তে অন্য কোনো সাংখ্যমান ধরা হলেও STP-তে কোনো গ্যাসের মোলার আয়তন একই থাকবে।

উত্তর- মিথ্যা

২.৩ নির্দিষ্ট উষ্ণতা ও চাপে দুটি আদর্শ গ্যাসের আয়তন অনুপাত গ্যাসদুটির মোল সংখ্যার অনুপাতের সমান।

উত্তর- সত্য

৩. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও : ২ x ৪ =৮

৩.১ মাত্রীয় বিশ্লেষণ থেকে গ্যাস ধ্রুবক ‘R’-এর একক কী হওয়া উচিত তা দেখাও।

উত্তর-

image 11
Class 10 Model Activity Task Part 2

৩.২ প্রধানত কোন কোন কারণে বাস্তব গ্যাসগুলি আদর্শ আচরণ থেকে বিচ্যুত হয়?

উত্তর- i) আদর্শ গ্যাস অনুগুলিকে বিন্দু রূপে কল্পনা করা হয়, তাই আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির আয়তন কে নগণ্য ধরা হয়। কিন্তু বাস্তব গ্যাস গুলির অনুগুলি অতি ক্ষুদ্র হলেও তাদের একটি নির্দিষ্ট আয়তন আছে। বাস্তব গ্যাসের অনুগুলির অবাধ বিচরণের জন্য কার্যকরী আয়তন পাত্রের আয়তনের তুলনায় কিছু কম হয়।

ii) গ্যাসীয় গতীয় তত্বানুসারে আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির মধ্যে কোনো আকর্ষণ বল ক্রিয়া করে না কিন্তু বাস্তব গ্যাসগুলির মধ্যে আকর্ষণ ও বিকর্ষন বল ক্রিয়া করে।তাই আদর্শ গ্যাসের অনুগুলি পাত্রের দেওয়ালে যে পরিমাণ ধাক্কা দিতে পারে বাস্তব গ্যাসের অনুগুলি তা পারে না।

৩.৩ স্থির চাপে স্থির ভরের আদর্শ গ্যাসের ক্ষেত্রে V – t ও V – T লেখচিত্র কেমন হবে এঁকে দেখাও।

উত্তর-

image 12

৩.৪ সম চাপে ও সম উন্নতায় সমায়তনের শুষ্ক বাতাস ও আর্দ্র বাতাসের মধ্যে কোনটি হালকা হবে যুক্তিসহ ব্যাখ্যা করো।

উত্তর- আদ্র বায়ু বলতে ভেজা বায়ুকে বোঝানো হয়। অর্থাৎ জলীয় বাষ্প যুক্ত বায়ুকে বোঝানো হয়। বোঝা যাচ্ছে এই বায়ুতে জলীয় বাষ্পের উপস্থিতি বেশি থাকবে। আমরা সবাই জানি যে জলীয়বাষ্প হল H20 এর গ্যাসীয় অবস্থা। জলীয়বাষ্পের আনবিক ভর

H = 1, 0 = 16, H2O = (2 x 1) + (16 x 1)= 18

শুষ্ক বায়ুতে অক্সিজেনের উপস্থিতি বেশি থাকে। অক্সিজেনের আনবিক ভর –

0 = 16, O2 = 16 x 2 = 32

এখন তুলনা করলে দেখা যায় অক্সিজেনের আণবিক ভরের থেকে জলীয় বাষ্পের আণবিক ভর অনেক কম। তাই শুষ্ক বায়ু অপেক্ষা আদ্র বায়ু হালকা হয়।

৪. নীচের প্রশ্ন দুটির উত্তর দাও : ৩ x ২ =৬

8.১ একটি আদর্শ গ্যাসের মধ্যে কিছু ধূলিকণা রয়েছে (ধূলিকণা চাপে অনমনীয়)। উন্নতা স্থির রেখে গ্যাসের চাপ দ্বিগুণ করা হলে ধূলিকণাসহ গ্যাসের আয়তন 1000ml থেকে কমে 500.25 mL হয়। ধূলিকণার সামগ্রিক আয়তন নির্ণয় করো।

উত্তর-

image 13
Class 10 Model Activity Task Part 2

৪.২ 760mm Hg চাপে 0°C উন্নতায় 3.2 g যে গ্যাসের আয়তন 2.24 L তার গ্রাম আণবিক ওজন নির্ণয় করো। সাধারণ হাইড্রোজেনের অণু অপেক্ষা গ্যাসের একটি অণু কতগুণ ভারী?

উত্তর-

image 14
Class 10 Model Activity Task Part 2

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

পূর্ণমান : ২০

দশম শ্রেণি

গণিত

Class 10 Model Activity Task Part 2 February 2022 Math

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 10 Part 2 গণিত

225e7c0c92794c3d8ed85b67ee07aa49 0001 min
Class 10 Model Activity Task Part 2
225e7c0c92794c3d8ed85b67ee07aa49 0002 min
Class 10 Model Activity Task Part 2
225e7c0c92794c3d8ed85b67ee07aa49 0003 min
Class 10 Model Activity Task Part 2
225e7c0c92794c3d8ed85b67ee07aa49 0004 min
Class 10 Model Activity Task Part 2

প্রিয় ছাত্র- ছাত্রীরা উপরের February Class 10 Model Activity Task Part 2 এর পুরোটাই সম্পূর্ণ ভাবে প্রশ্ন উত্তর সহ আলোচনা করা হয়েছে।

তোমাদের এই February Class 10 Model Activity Task Part 2 কেমন লাগলো সেটা অবশ্যই কমেন্ট করে জানিও। কারণ তোমাদের মূল্যবান কমেন্ট আমাদের নতুন কাজ করতে উৎসাহিত করে।

February Class 10 Model Activity Task Part 2

দশম শ্রেণীর সমস্ত বিষয়ের Pdf Book Download করতে নিচে ক্লিক করো :

আগের দশম শ্রেণীর মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক :

January Model Activity Task Class 10 Part 1

Final Model Activity Task Class 10 Part 8

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button