মডেল একটিভিটি টাস্ক

[ New ] Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 | সপ্তম শ্রেণী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Free

প্রিয় ছাত্র-ছাত্রীরা,

২৮ শে জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পরিষদ দ্বারা আবারো ফেব্রুয়ারী মাসে সপ্তম শ্রেণীর জন্য Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 দেওয়া হয়েছে। চতুর্থ শ্রেণীর জন্য জানুয়ারী মাসে একটি মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক দেওয়া হয়েছিল। সেটা এখনো যারা করোনি তারা এই লিংক এ ক্লিক করে সপ্তম শ্রেণীর জন্য মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্কটি করে এটা করে নিও।

এই পোস্টে সপ্তম শ্রেণীর জন্য ফেব্রুয়ারী মাসের মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর প্রশ্ন উত্তর সহ আলোচনা করা হলো। তোমরা এটি তোমাদের খাতায় করার আগে অবশ্যই নিজে করার চেষ্টা করবে। তারপর অসুবিধা হলে তোমরা এই পোস্টের সাহায্য নিতে পারো। উত্তর গুলি খাতায় করার আগে অবশ্যই মন দিয়ে দেখে তারপর খাতায় করবে।

সপ্তম শ্রেণীর সমস্ত বিষয়ের পাঠন পাঠনের জন্য আমাদের Youtube Channel ভিজিট করে Subscribe করে রাখতে পারো।

আমাদের ওয়েবসাইট আমার টার্গেট এ সবসময় যেকোনো শ্রেণীর Model Activity Task খুব দ্রুততার সাথে আপলোড করা হয়ে থাকে । পরবর্তীকালে যদি সপ্তম শ্রেণীর জন্য নতুন কোনো মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক (Model Activity Task Class 7 Part 3) দেওয়া হয় আর সেটা সবার আগে পাওয়ার জন্য অবশ্যই আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল, ফেইসবুক পেজ Join করে রাখো।

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 All Subject

Table of Contents

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

সপ্তম শ্রেণি

বাংলা

পূর্ণমান : ২০

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 Bengali

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 বাংলা

১. ঠিক উত্তর বেছে নিয়ে লেখো : ১×৩=৩

১.১ ‘পাগলা গণেশ’ গল্পের ঘটনাকাল

(ক) ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

(খ) ১০৮৯ খ্রিস্টাব্দ

(গ) ২০৮৯ খ্রিস্টাব্দ

(ঘ) ৩৫৮৯ খ্রিস্টাব্দ

উত্তর- (ঘ) ৩৫৮৯ খ্রিস্টাব্দ

১.২ ‘মৃত্যুঞ্জয় টনিক’ যখন আবিষ্কৃত হয়, তখন গণেশের বয়স – –

(ক) ২০ বছর

(খ) ৩০ বছর

(গ) ৫০ বছর

(ঘ) ১৫০ বছর

উত্তর- (গ) ৫০ বছর

১.৩ বায়োকেমিস্ট্রির ল্যাবরেটরি স্থাপিত হয়েছিল।

(ক) এভারেস্টের চূড়ায়

(খ) রুপকুণ্ডে

(গ) কাঞ্চনজঙ্ঘায়

(ঘ) গঙ্গোত্রীতে

উত্তর- (খ) রুপকুণ্ডে

২. নীচের প্রশ্নগুলির একটি বাক্যে উত্তর দাও : ১×৩=৩

২.১ ‘ব্যতিক্রম অবশ্য এক আধজন আছে।’— কোন বিষয়ের ব্যতিক্রম?

উত্তর- শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত ‘পাগলা গণেশ’ গল্পে দেখা যায় মানুষের মন থেকে হারিয়ে গেছে সৌন্দর্য, দয়া-মায়া – করুণা প্রভৃতির অনুভূতি এবং মানুষের জীবনে এসবের চর্চাও আর হয় না। এই সকল  বিষয়ে ব্যতিক্রমী হিসাবে পাগলা গণেশের কথা বলা হয়েছে।

২.২ ও মশাই, অমন বিকট শব্দ করছেন কেন?’— কারা একথা বলেছিল?

উত্তর- শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত ‘পাগলা গণেশ’ গল্পে একদিন সন্ধেবেলা গণেশ গলা ছেড়ে গান গাইছিল তখন হঠাৎ দুটো পাখাওলা লোক লাসা থেকে ইসলামাবাদ যেতে যেতে নেমে এসে ধমক দিয়ে তাকে উপরোক্ত মন্তব্যটি করেছিলো।

২.৩ ‘পৃথিবীর জনসংখ্যার ভারসাম্য রাখতে তা করা আবশ্যিক।’— কোন কাজটি করা আবশ্যিক?

উত্তর- গণেশ বুঝতে পেরেছিল, মৃত্যুঞ্জয় টনিক আবিষ্কার হওয়ার ফলে কোনভাবেই মানুষের মৃত্যু হয় না। অন্যদিকে নতুন শিশুও জন্মায় না। তাই পৃথিবীতে জনসংখ্যার ভারসাম্য বজায় রাখতে মৃত মানুষের জীবন বাঁচিয়ে তোলা আবশ্যিক কাজ।

৩. নীচের প্রশ্নগুলির সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও : ৩x৩=৯

৩.১ ‘তা বলে পৃথিবীর মানুষেরা হাল ছাড়েনি।’— কোন বিষয়ে তারা হাল ছাড়েনি?

উত্তর- উদ্ধৃতাংশটি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত ‘পাগলা গনেশ’ গদ্যাংশ থেকে গৃহীত হয়েছে। এই পৃথিবীর সুদূর ভবিষ্যৎ, ৩৫৮৯ সালে দেখা যায় পৃথিবীর মানুষ বৈজ্ঞানিক উন্নতির চরম নিদর্শন স্বরূপ চাঁদ, মঙ্গল, শুক্র গ্রহে ল্যাবরটরি তৈরি করে ফেলেছে। এক দেড়শো বছর আগে থেকে মানুষ মহাকাশে রওনা দিয়েছে। যারা আকাশের অনেক দূর-দূরান্তে পাড়ি দিয়েছে তাদের ফিরে আসার সঠিক সময় জানা যায়নি। এরই মধ্যে এক দেড়শো বছর আগে যারা জন্মেছিল, মৃত্যুঞ্জয় টনিকের প্রভাবে তাদের তখনও মৃত্যু হয়নি। বহু বছর আগে যারা মহাকাশে গেছে তাদের ফিরে আসার অপেক্ষায় বহু মানুষ বেঁচে আছে। মহাকাশের জন্য শত শত  দূর-দূরান্তে যাওয়া এবং ফিরে আসার জন্য শত শত বৎসর অপেক্ষা করতে  করতে পৃথিবীর মানুষ হাল ছাড়েনি।

৩.২ ‘খামোখা সময় নষ্ট।’— কোন প্রসঙ্গে একথা বলা হয়েছে?

উত্তর- উদ্ধৃতাংশটি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত ‘পাগলা গনেশ’ গদ্যাংশ থেকে গৃহীত। ৩৫৮৯ সালে দেখা যায় পৃথিবীর সমস্ত ঘরে ঘরে মানুষ বিজ্ঞানচর্চা  নিয়ে বুঁদ হয়ে আছে। এই পৃথিবীতে আছে শুধু বিজ্ঞান আর বিজ্ঞান। প্রতি ঘরেই, প্রত্যেকেই কোনো না কোন বিজ্ঞানী।  বিজ্ঞান চর্চা ছাড়া অন্য কোনো চর্চায় কেউ মাথা ঘামায় না। এছাড়া অন্য কোনো না কোন মানুষজন মনে করে কবিতা, গান, ছবি আঁকা, সাহিত্যচর্চা, নাটক, সিনেমা, খেলাধুলা এসব নিয়ে চর্চা বাস্তব জীবনে কোনো কাজে লাগে না, তাই তাদের মনে হয়েছে এসব চর্চা করা মানে খামোখা সময় নষ্ট। এভাবেই বিজ্ঞান চর্চার বাড়বাড়ন্ত ভবিষ্যতে মানুষের শিল্প-মনকে,শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতির চর্চাকে ধ্বংস করে দেবে এই প্রসঙ্গেই কথাটি বলা হয়েছিল ।

৩.৩ ‘গণেশের ব্যাপারটা পছন্দ হয়নি।’— কোন ব্যাপারটি গণেশ পছন্দ করেনি?

উত্তর- উদ্ধৃতাংশটি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত ‘পাগলা গনেশ’ গদ্যাংশ থেকে গৃহীত। পৃথিবীর সুদূর ভবিষ্যৎ, ৩৫৮৯ সালে দেখা যায় পৃথিবীতে শিল্প-সাহিত্য-সংগীত বলে কিছু নেই, আছে শুধু বিজ্ঞান কিন্তু একদিনে পৃথিবীর এই দশা হয়নি। দেড়শ বছর আগে থেকেই পৃথিবীতে সুকুমার শিল্প বিরোধী আন্দোলন শুরু হয়। ধীরে শিল্প -সাহিত্য পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হতে শুরু করে। ধীরে ধীরে এভাবে  শিল্পের ধ্বংসসাধন হওয়ার ব্যাপারটি গণেশের পছন্দ হয়নি।

৪. নীচের প্রশ্নটির উত্তর নিজের ভাষায় লেখো : ৫

‘পাগলা গণেশ’ গল্পে গণেশকে ‘পাগলা’ মনে করা কতদূর যুক্তিসঙ্গত বলে তুমি মনে করো?

উত্তর- শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় রচিত ‘পাগলা গনেশ’ গল্পে দেখা যায় পৃথিবীর সুন্দর ভবিষ্যৎ, ৩৫৮৯ সালে পৃথিবীরপারিপার্শ্বিক সমাজ, মানুষের মানসিকতার আমূল পরিবর্তন ঘটেছে। পৃথিবীতে রয়েছে শুধু বিজ্ঞান আর বিজ্ঞান। প্রত্যেক ঘরে ঘরে তৈরি হয়েছে কোনো না কোনো বিজ্ঞানী। কবিতা, গান, কবি, কথাসাহিত্য, নাটক-সিনেমা ইত্যাদি নান্দনিক বিষয় চর্চা সমাজ থেকে বিলুপ্ত হয়েছে। সাথে সাথে মানুষের মন থেকে  হারিয়েছে দয়া, মায়া, ভালোবাসা এবং মমত্ববোধ। এই সময় পর্বে দাঁড়িয়ে বিজ্ঞান চর্চার ঊর্ধ্বে গিয়ে কাজ করতে চেয়েছে গণেশ। বিজ্ঞানের একচ্ছত্র বাড়াবাড়ির যে একটা সীমা থাকা উচিত এই বিশ্বাস নিয়ে পাগলের মতো  সুকুমার শিল্প গুলিকে পরিচিত রাখতে তৎপর হয়েছে গণেশ। সমাজের চোখে ব্যতিক্রম হয়ে উঠে  মানুষকে বোঝাতে চেয়েছে, নান্দনিক শিল্পচর্চার অপমৃত্যু সমাজের পক্ষে ক্ষতিকর।

পাগলের মতো অনেককিছু করার পর গণেশ একটা সময় বুঝতে পেরেছে কালের চাকার গতিকে সে একা উল্টোপথে ঘোরাতে পারবে না। তবুও সে প্রাণপণ চেষ্টা করেছে । হিমালয়ের নির্জন গিরিগুহায় আশ্রয় নিয়ে সে নিজের ভাবনাকে বিজ্ঞানের স্রোত থেকে দূরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে সে।

সমাজের এককেন্দ্রিক গতিমুখ ছাড়িয়ে কোনো মানুষ ব্যতিক্রম কিছু করতে গেলে সমাজ তাকে পাগল তকমা দেয়। ইতিহাসে এমন ঘটনা বহু ঘটেছে। গণেশের ভাগ্যেও এই পাগল তকমা জুটেছে। যুগের প্রেক্ষিতে বিজ্ঞানপাগল মানুষের কাছে তার উদ্যোগ পাগলামো মনে হলেও সে কাছে তার যুগের প্রেক্ষিতে যুগোত্তীর্ণ ভাবনার কান্ডারী। সারা পৃথিবীর মানুষ যা তাই গণেশ কে কোন মতেই পাগল বলা যুক্তি সংগত নয়।

Model Activity Task

Class – VII

English

Full Marks: 20

Class 7 Model Activity Task Part 2 February

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 English

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 ইংলিশ

1. Read the following passage and answer the questions that follow:

The king of kings, Emperor Akbar, who ruled over India was a great lover of arts, sciences, literature and music. One day, on a fine morning, he was walking in his vast garden. His garden was lined with trees that produced the tastiest and juiciest fruits in the whole kingdom. There were flowers of all shapes and sizes in his garden. He had his most trusted and favourite minister Birbal with him.

But the great Emperor Akbar did not have peace of mind, the quality without which no one, not even the king of kings, can appreciate beauty.

A. Tick the correct answer: 1×2= 2

(i) Akbar was walking in his garden.

(a) in the moming      (b) at night     (c) in the evening

Ans: (a) in the moming     

(ii) Birbal was Akbar’s

(a) enemy     (b) brother     (c) minister

Ans: (c) minister

B. Answer the following questions:  2×2=6

(i) Who was Akbar?

Ans: Akbar was one of the greatest Mughal Emperor who ruled over India. He was  also a great lover of arts, sciences, literature and music.

(ii) How was the garden of Akbar?

Ans: Akbar garden was vast with all kinds of trees which produced the tastiest and juiciest fruits in the whole kingdom. Their was very beautiful flowers of all shapes & sizes in his garden.

(iii) What quality is required to appreciate beauty?

Ans: The quality that required to appreciate beauty is peace of mind.

2. Do as directed: 1×5=5

(i) Last evening my mother and I ________________ (watch) the news on the TV. (Fill in the blanks with past Continuous Tense)

Ans: were watching

(ii) The garden of Akbar was _________________  (beautiful) than most other gardens. (Fill in the blanks with the comparative degree of the adjective)

Ans: More beautiful

(iii) He took an umbrella but I forgot to take ________________ . (Fill in the blanks with Possessive Pronoun)

Ans: mine

(iv) Mount Everest is the _________________ (high) mountain in the world. (Fill in the blanks with the superlative degree of the adjective)

Ans: highest

(v) I am not so strong as you. (Rewrite the sentence using the antonym of the underlined word)

Ans : weak

3. Write a story (in about 70 words) using the following outline. Give a suitable title to your story:  7

Outline:  ass carrying a load of salt-falls into a stream by chance-load becomes light-next time master puts a load of cotton falls into streams purposefully-result

Ans:

A Salt Marchant And His Ass

In a village, there lived a salt merchant. He would use his ass to carry the salt around on its back. They had to cross a river every day. There was a tiny bridge on the way. The ass lost his balance and fell into the river one day while crossing the bridge. He became really thrilled when the salt on his back melted and became very light.

Since that day, he has purposefully fallen into the river to lighten his load. After a few days, his master realised what he was up to. He replaced the salt bag with a cotton bag the next day. The ass also purposely fell into the river on that day. But, alas, the load grew heavier at that point. Thereafter the ass never fell into the river intentionally.

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

সপ্তম শ্রেণি

ইতিহাস

পূর্ণমান : ২০

Class 7 Model Activity Task Part 2 February

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 History

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 ইতিহাস

১. শূন্যস্থান পূরণ করো : ১ x 8=8

(ক) বঙ্গ নামটির প্রথম উল্লেখ পাওয়া যায় ঋকবেদের _________________ ।

উত্তর- ঐতরেয় আরণ্যক

(খ) পূর্ব পাকিস্তান স্বাধীন দেশ হয় ________________  খ্রিস্টাব্দে।

উত্তর- ১৯৭১

(গ) শশাঙ্কের রাজধানী ছিল _________________ ।

উত্তর- কর্ণসুবর্ণ

(ঘ) লক্ষণসেনের রাজধানী ছিল _________________ ।

উত্তর- পূর্ববঙ্গের বিক্রমপুর

২. স্তম্ভ মেলাও : ১ x 8=8

ক-স্তম্ভ  খ-স্তম্ভ  
গৌড়বহো  
হর্ষচরিত  
কিতাব অল-হিন্দ  
রামচরিত  
বাণভট্ট  
অল বিরুনি  
সন্ধ্যাকর নন্দী  
বাপতিরাজ  

উত্তর-

ক-স্তম্ভ  খ-স্তম্ভ  
গৌড়বহো  
হর্ষচরিত  
কিতাব অল-হিন্দ  
রামচরিত  
বাপতিরাজ  
বাণভট্ট  
অল বিরুনি  
সন্ধ্যাকর নন্দী    
Class 7 Model Activity Task Part 2 February

৩. একটি-দুটি বাক্যে উত্তর দাও : ১×৩ = ৩

(ক) কোন তিনটি নদী দিয়ে প্রাচীন বাংলার সীমানা তৈরি হয়েছিল?

উত্তর- ভাগীরথী, পদ্মা এবং মেঘনা -এই তিনটি নদী দিয়ে প্রাচীন বাংলার সীমানা তৈরি হয়েছিল।

(খ) কে ‘গঙ্গাইকোল্ডচোল’ উপাধি নিয়েছিলেন?

উত্তর- চোলরাজা প্রথম রাজেন্দ্র চোল (1016-1044) ‘গঙ্গাইকোচোল’ উপাধি নিয়েছিলেন।

(গ) ‘খলিফা’ শব্দের অর্থ কী?

উত্তর- খলিফা’ শব্দের অর্থ হল – প্রতিনিধি বা উত্তরাধিকারী।

৪. চার-পাঁচটি বাক্যে উত্তর দাও : ৩×৩ = ৯

(ক) ‘মাৎসন্যায়’ কী?

উত্তর- মাৎস্যন্যায় বলতে দেশে অরাজকতা বা স্থায়ী রাজার অভাবকে বোঝানো হয়। পুকুরে বড়ো মাছ যেমন ছোটো মাছকে খেয়ে ফেলে, অরাজকতার সময়ে তেমনি শক্তিশালী লোক দুর্বল লোকের ওপর অত্যাচার করে। শশাঙ্কের মৃত্যুর পরে খ্রিস্টীয় সপ্তম শতকের মধ্যভাগ থেকে অষ্টম শতকের মধ্যভাগ পর্যন্ত একশো বছর ছিল বাংলার ইতিহাসে একটা পরিবর্তনের যুগ। ঐ যুগে প্রত্যেক ক্ষত্রিয়, সম্ভ্রান্ত লোক, ব্রাহ্মণ এবং বণিক ইচ্ছামতো নিজের নিজের এলাকা শাসন করত। বাংলায় কোনো কেন্দ্রীয় শাসক ছিল না। বছরের পর বছর এই অবস্থা চলার পরে বাংলার প্রভাবশালী লোকেরা মিলে খ্রিস্টীয় অষ্টম শতকের মধ্যভাগে গোপাল নামে একজনকে তারা রাজা নির্বাচন করে (আনুমানিক ৭৫০ খ্রিস্টাব্দ)। ঐ সময় থেকেই বাংলায় পাল বংশের রাজত্ব শুরু হয়।

(খ) কৈবর্ত বিদ্রোহ কোন সময়, কোথায় সংঘটিত হয়েছিল? এই বিদ্রোহে কারা নেতৃত্বে দিয়েছিলেন?

উত্তর- একাদশ শতকের দ্বিতীয়ভাগে বাংলায় কৈবর্ত বিদ্রোহ হয়েছিল। কৈবর্তরা ছিল সম্ভবত নৌকার মাঝি বা জেলে। সে সময়ে বাংলার উত্তর ভাগে কৈবর্তদের যথেষ্ট প্রভাব ছিল। সন্ধ্যাকর নন্দীর রামচরিত কাব্যে এই বিদ্রোহের বিবরণ আছে। এই বিদ্রোহের তিনজন নেতা ছিলেন: দিব্য (দিব্বোক), রুদাক এবং ভীম।

(গ) ভারতের সাথে আরবদের যোগাযোগ ঘটেছিল কীভাবে?

উত্তর- ভারতের সঙ্গে ইসলামের যোগাযোগ ঘটেছিল তুর্কিরা এদেশে আসার অনেক আগেই। খ্রিস্টীয় অষ্টম-নবম  শতকে আরব বণিকরা ভারতের পশ্চিম উপকূলে আসতেন। সিন্ধু মোহনায়, মালাবারে আরবি মুসলিম বণিকদের বসতি গড়ে উঠেছিল। এর থেকে যেমন আরব বণিকরা লাভবান হয়েছিল, তেমনি স্থানীয় ব্যবসায়ীদের লাভ হয়েছিল। শাসকরাও এর থেকে লাভবান হয়েছিল। হিন্দু, জৈন এবং মুসলিম বণিকদের এই বাণিজ্য ধর্মীয় সহিষ্ণুতার এক উজ্জ্বল নিদর্শন। ঐ যুগে বাগদাদের খলিফাদের উদ্যোগে সংস্কৃত ভাষায়  রচিত জ্যোতির্বিদ্যা, চিকিৎসাশাস্ত্র, সাহিত্য ইত্যাদি আরবি ভাষায় অনূদিত হয়েছিল।

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

সপ্তম শ্রেণি

পরিবেশ ও ভূগোল

পূর্ণমান : ২০

Class 7 Model Activity Task Part 2 February

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 Paribesh o Bhugol

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 পরিবেশ ও ভূগোল

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখো : ১×৩ = ৩

১.১ নিরক্ষরেখার সাপেক্ষে ভারত অবস্থিত –

(ক) উত্তর গোলার্ধে

(খ) দক্ষিণ গোলার্ধে

(গ) পূর্ব গোলার্ধে

(ঘ) পশ্চিম গোলার্ধে

উত্তর- (ক) উত্তর গোলার্ধে

১.২ ভূ-গোলকে একটি অক্ষরেখা একটি দ্রাঘিমারেখাকে যত ডিগ্রি কোণে ছেদ করে তা হলো

(ক) 0°

(খ) ৯০°

(গ) ৬০°

(ঘ) ৩০°

উত্তর- (খ) ৯০°

১.৩ ভূ-গোলকে অঙ্কিত প্রত্যেকটি দ্রাঘিমারেখা –

(ক) উপবৃত্ত

(খ) পূর্ণবৃত্ত

(গ) অর্ধবৃত্ত

(ঘ) সরলরৈখিক

উত্তর- (গ) অর্ধবৃত্ত

২.১ শূন্যস্থান পূরণ করো : ১ × ২ =২

২.১.১  ১° দ্রাঘিমা ঘুরতে পৃথিবীর সময় লাগে ________________ ঘণ্টা।

উত্তর- ৪ মিনিট

২.১.২  দুটি দ্রাঘিমার মধ্যে দূরত্ব _________________ উপর সবচেয়ে বেশি।

উত্তর- নিরক্ষরেখা

২.২ ‘ক’ স্তম্ভের সঙ্গে ‘খ’ স্তম্ভ মেলাও : ১×৩ = ৩

‘ক’ স্তম্ভ  ‘খ’ স্তম্ভ  
২.২.১    ২৩°৩০′ উঃ  
২.২.২    0°  
২.২.৩    ৮২°৩০′ পূঃ  
১. মূলমধ্যরেখা  
২. ভারতের প্রমাণ সময়  
৩. কর্কটক্রান্তি রেখা  

উত্তর-

‘ক’ স্তম্ভ  ‘খ’ স্তম্ভ  
২.২.১    ২৩°৩০′ উঃ  
২.২.২    0°  
২.২.৩    ৮২°৩০′ পূঃ  
৩. কর্কটক্রান্তি রেখা  
১. মূলমধ্যরেখা  
২. ভারতের প্রমাণ সময়    

৩. নীচের প্রশ্নগুলির সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও : ২ × ২ = ৪

৩.১ অক্ষরেখা কাকে বলে?

উত্তর- নিরক্ষরেখার সমান্তরালে পূর্ব-পশ্চিমে বিস্তৃত কাল্পনিক রেখাগুলো হল অক্ষরেখা।

৩.২ GPS-এর দুটি উপযোগিতা উল্লেখ করো।

উত্তর-

ক) অবস্থান নির্ণয়- GPS এর সাহায্যে পৃথিবীর যে কোনো স্থানের অবস্থান খুব নিখুঁতভাবে জানা যায়।

খ) মানচিত্র তৈরি বিভিন্ন দেশের সীমানা চিহ্নিতকরণে ও বিভিন্ন প্রকার মানচিত্র তৈরিতে GPS ব্যবহার করা হয়।

৪. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও : ৩ × ১ = ৩

অক্ষরেখা ও দ্রাঘিমারেখার মধ্যে তিনটি পার্থক্য লেখো।

উত্তর-

অক্ষরেখা  দ্রাঘিমারেখা  
১। অক্ষরেখাগুলো পৃথিবীকে পূর্ব-পশ্চিমে বেষ্টন করে আছে।  ১। দ্রাঘিমারেখাগুলো পৃথিবীকে উত্তর দক্ষিণে বেষ্টন করে আছে।  
২। নিরক্ষরেখা থেকে অক্ষরেখা গণনা করা হয়।  ২। মূল মধ্যরেখা থেকে দ্রাঘিমারেখা গণনাকরা হয়।  
৩। অক্ষরেখাগুলোর মান ০ (শূন্য ডিগ্রি)  থেকে ৯০° পর্যন্ত।  ৩। দ্রাঘিমারেখাগুলোর মান ০° (শূন্য ডিগ্রি) থেকে ১৮০° পর্যন্ত।  

৫. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও : ৫ × ১ = ৫

চিত্রসহ কোনো স্থানের দ্রাঘিমা নির্ণয়ের পদ্ধতিটি লেখো।

উত্তর- অক্ষাংশ বোঝাবার সময় আমরা দেখেছি কিভাবে দুটি সরলরেখা পৃথিবীর কেন্দ্রে কোন তৈরি করে। দ্রাঘিমাংশ নির্ণয়ের ক্ষেত্রে মূল মধ্যরেখা কে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রেখা হিসেবে ধরা হয় । ভূগোলক এর মূল মধ্যরেখা ( 0 দ্রাঘিমা রেখা ) থেকে একটি সরলরেখা পৃথিবীর কেন্দ্র ( C বিন্দু ) পর্যন্ত টানা হয়েছে । P নামক স্থানটি যে দ্রাঘিমায় অবস্থিত সেখান থেকেও অপর একটি সরলরেখা কেন্দ্র পর্যন্ত টানা হয়েছে । ওই দুটি সরলরেখা পৃথিবীর কেন্দ্রে যে কোন ( RCP ) তৈরি করেছে সেটাই দ্রাঘিমাংশ । ধরা যাক তার মান 600 ডিগ্রী অতএব স্থানটি দ্রাঘিমাংশ হবে 600 ডিগ্রি পশ্চিম ।

image 3

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

পরিবেশ ও বিজ্ঞান

সপ্তম শ্রেণি

পূর্ণমান : ২০

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 Paribesh O Bigyan

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 পরিবেশ ও বিজ্ঞান

১. ঠিক উত্তর নির্বাচন করো :  ১×৩=৩

১.১ এমন একটি খাদ্য উপাদান যা থেকে শক্তি পাওয়া যায় না তা হলো

(ক) কার্বোহাইড্রেট

(খ) ভিটামিন

(গ) লিপিড

(ঘ) প্রোটিন

উত্তর- (খ) ভিটামিন

১.২ গয়টার হয় যে খাদ্য উপাদানের অভাবে তা হলো

(ক) সোডিয়াম

(খ) আয়রন

(গ) আয়োডিন

(ঘ) ক্যালশিয়াম

উত্তর- (গ) আয়োডিন

১.৩ একটি প্রক্রিয়াজাত খাদ্যের উদাহরণ হলো

(ক) আনারস

(খ) আনারসের জ্যাম

(গ) আম

(ঘ) কোল্ড ড্রিংক্স

উত্তর- (খ) আনারসের জ্যাম

২. শূন্যস্থান পূরণ করো : ১×৩=৩

২.১ প্রোটিনের অভাবে ________________ রোগ হয়।

উত্তর- কোয়াশিওকর

২.২ চুল ও নখে _________________ প্রোটিন থাকে।

উত্তর- কেরাটিন

২.৩ আয়রন _________________ পরিবহণে সাহায্য করে।

উত্তর- অক্সিজেন

৩. একটি বা দুটি বাক্যে উত্তর দাও : ২× ৪=৮

৩.১ খাদ্যতত্ত্ব পাওয়া যায় এমন দুটো খাবারের নাম লেখো।

উত্তর- খাদ্যতত্ত্ব পাওয়া যায় এমন দুটো খাবারের নাম হল – সজনে ডাঁটা, বাঁধাকপি

৩.২ ম্যারাসমাস রোগের ক্ষেত্রে কী কী লক্ষণ দেখা যায়?

উত্তর- ম্যারাসমাস রোগের লক্ষণ গুলি হল –

ক.  দেহের বৃদ্ধি হ্রাস পায় ও পেশি ক্ষয়

খ. অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতা

গ. ত্বক  শুষ্ক  হয়

ঘ.  ঘনঘন পেটের অসুখ দেখা যায়

ঙ.দেহের চামড়া কুঁচকে যায় এবং ফ্যাকাসে হয়ে যায়

চ. দেহের ওজন কমে যায়

৩.৩ মানবদেহে লিপিডের ভূমিকা উল্লেখ করো।

উত্তর- মানবদেহে লিপিডের ভূমিকা–

ক) এটি দেহের শক্তির উৎসরূপে কাজ করে।

খ) দেহকে বাইরের আঘাত থেকে রক্ষা করে।

গ) দেহ থেকে তাপ বেরিয়ে যাওয়া কমিয়ে দেয়।

ঘ) শরীরে অতিরিক্ত লিপিড জমা হলে হৃৎপিণ্ড, রক্তনালী ও যকৃতের নানা রকম সমস্যা তৈরি হয়।

৩.৪ ভিটামিন C-র দুটি উৎসের নাম লেখো।

উত্তর- ভিটামিন C-র দুটি উৎসের নাম হল নানারকম লেবু জাতীয় ফল, কাঁচালঙ্কা ।

৪. তিন-চারটি বাক্যে উত্তর : ৩×২=৬

৪.১ মানবদেহে ফাইটোকেমিক্যালসের ভূমিকা উল্লেখ করো।

উত্তর- মানবদেহে ফাইটোকেমিক্যালসের ভূমিকা :

ক) মানবদেহকে সজীব ও কর্মসক্ষম করে তোলে

খ) মানবদেহের বার্ধক্য প্রতিরোধ করে

গ) হৃৎপিণ্ডের স্বাভাবিক কাজ বজায় রাখতে সাহায্য করে

ঘ) হাড়কে শক্ত ও মজবুত করে

ঙ) ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা  অনেকটা কমিয়ে দেয়

৪.২ জীবদেহে জলের ভূমিকা ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ-জীবদেহে জলের ভূমিকা –

ক) মানবদেহের সংবহনতন্ত্র সংগঠনের মূল উপাদান হিসেবে কাজ করা।

খ) জীবদেহের সকল শারীরবৃত্তীয় কাজ ও বিক্রিয়া।

গ) উদ্ভিদদেহে খাদ্যসংশ্লেষণের মূল উপাদান জল।

ঘ) দেহ থেকে বর্জ্যপদার্থ নিষ্কাষণে সাহায্য করে।

ঙ) দেহতাপ সংরক্ষণে সাহায্য  ও দেহে উৎপন্ন তাপকে দেহের সর্বত্র পরিবহণ করে।

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

স্বাস্থ্য ও শারীরশিক্ষা

সপ্তম শ্রেণি

পূর্ণমান : ২০

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 Swasthyo O Sarirsikkha

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 স্বাস্থ্য ও শরীরশিক্ষা

১। সঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে ✔ চিহ্ন দাও:  ১ x 8=8

(ক) খেলা (Play) কী?

(i) আইনের অনুশাসন

(ii) সহজাত প্রবৃত্তি

(iii) পেশাদারিত্ব

(iv) সবকয়টি

উত্তর- (iii) পেশাদারিত্ব ✔

(খ) গ্রিক কোন শব্দ থেকে জিমনাস্টিক কথাটি এসেছে?

(i) অ্যাথলস

(ii) জিমনা

(iii) জিমনস

(iv) জিমনাস

উত্তর- (iv) জিমনাস ✔

(গ) কখন উষ্মীকরণ করা উচিত?

(i) খেলার সময়

(ii) খেলা শেষ হবার পরে

(iii) খেলা শুরুর আগে

(iv) খেলা শুরুর আগে ও পরে ✔

উত্তর- (iv) খেলা শুরুর আগে ও পরে

(ঘ) ড্রিল কী?

(i) ছন্দময় ব্যায়াম

(ii) শৃঙ্খলাবদ্ধ ব্যায়াম

(iii) সৌন্দর্যমূলক ব্যায়াম

(iv) ছন্দময়, শৃঙ্খলাবদ্ধ ও সৌন্দর্যমূলক ব্যায়ামের সমষ্টি

উত্তর- (iv) ছন্দময়, শৃঙ্খলাবদ্ধ ও সৌন্দর্যমূলক ব্যায়ামের সমষ্টি ✔

(২) বাম স্তম্ভের সঙ্গে ডান স্তম্ভের সমতাবিধান করো : ১×৬ = ৬

বাম স্তম্ভ  ডান স্তম্ভ
(ক) অ্যাথলেটিকস  
(খ) শরীরচর্চা  
(গ) বিনোদন  
(ঘ) ইন্ডিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন  
(ঙ) ইস্টবেঙ্গল ক্লাব  
(চ) মোহনবাগান ক্লাব প্রথম IFA শিল্ড চ্যাম্পিয়ান হয়েছিল  
(i) তিন প্রকার  
(ii) ১৮৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়  
(iii) ১৯২০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়  
(iv) ১৯১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়  
(v) শারীরিক সংস্কৃতি  
(vi) ১৯১১ সালে  
(vii) অ্যাথলস  

উত্তর-

বাম স্তম্ভ  ডান স্তম্ভ
(ক) অ্যাথলেটিকস  (vii) অ্যাথলস  
(খ) শরীরচর্চা  (v) শারীরিক সংস্কৃতি  
(গ) বিনোদন  (i) তিন প্রকার  
(ঘ) ইন্ডিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন  (ii) ১৮৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়  
(ঙ) ইস্টবেঙ্গল ক্লাব  (iv) ১৯১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়  
(চ) মোহনবাগান ক্লাব প্রথম IFA শিল্ড চ্যাম্পিয়ান হয়েছিল  (vi) ১৯১১ সালে  
   (iii) ১৯২০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়  

(৩) শব্দ ঝুড়ি থেকে সঠিক উত্তরটি বেছে শূন্যস্থানটি পূরণ করো : ১ × ৬ = ৬

(ক) একটি দেশ কেবল কাগজের __________________ নয়, তার অবস্থান মানুষের হৃদয়ে।

উত্তর- মানচিত্র

(খ) জাতির জাগরণের এবং উন্নয়নের জন্য ___________________ অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বিষয়।

উত্তর- জাতীয়  সংহতি

(গ) __________________ একটি খেলার উদাহরণ।

উত্তর- কানামাছি

(ঘ) ব্যাপক অর্থে সমস্ত খেলাধুলাকেই __________________ বলা হয়।

উত্তর- অ্যাথলেটিক্স

(ঙ) একতা ও অনুশাসন, __________________ -র মূলমন্ত্র।

উত্তর- এন.সি.সি

(চ) ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের জার্সির রঙ হলো ___________________ ।

উত্তর- লাল-হলুদ

[শব্দ ঝুড়ি : লাল-হলুদ, এম.সি.সি., মানচিত্র, জাতীয় সংহতি, ফুটবল, অ্যাথলেটিক্স, কানামাছি]

(৪) রচনাধর্ম প্রশ্নের উত্তর দাও :

(ক) জাতীয় সংহতিরক্ষায় শারীরশিক্ষার ভূমিকা বর্ণনা করো।

উত্তর- খেলাধুলা ও শারীরশিক্ষার যেসমস্ত কার্যক্রম রয়েছে তা থেকে জাতীয় সংহতির বোধ জাগ্রত হয়। বিষয়গুলি হলো–

(i) দলগত খেলায় ধর্মীয় সমন্বয়ের মাধ্যমে জাতীয় সংহতি বৃদ্ধি— যে কোনো খেলায় দলগঠনের সময় খেলোয়াড়দের গুণগত মান দেখে বাছাই করা হয়। তাই একটি দলের মধ্যে হিন্দু-মুসলমান-শিখ-খ্রিস্টান-বৌদ্ধ বিভিন্ন  ধর্মের খেলোয়াড়ই থাকে। খেলার মাঠে সমস্ত খেলোয়াড় তাদের ধর্মীয় বিভেদ ভুলে একসঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একটিমাত্র লক্ষ্যপূরণের উদ্দেশে ব্রতী হয়। তাই খেলাধুলার মাঠ হলো সর্বধর্মসমন্বয়ের একটি ক্ষেত্র। এর ফলে জাতীয় সংহতি সুদৃঢ় হয়।

(ii) দলগত খেলা বর্ণভেদপ্রথাকে অবলুপ্ত করে- একটি দলে বিভিন্ন জাতির খেলোয়াড় থাকে, মাঠে খেলার সময় কে উচ্চবর্ণের/ কে নিম্নবর্ণের/কে ব্রাক্ষ্মণ/ কে শূদ্র তা দেখা হয় না। সকল বর্ণের মানুষ একে অপরকে সহযোগিতা করে। এর ফলে সমাজের মধ্যে বর্ণভেদ অবলুপ্ত হয়। খেলার মাঠই আমাদের সকল বর্ণের বিভেদ ভুলে গিয়ে মানুষকে জাতীয় সংহতিতে আরও দৃঢ় করে।

(iii) সহযোগী, সহমর্মী মনোভাব তৈরি – খেলায়, দলের একজন সদস্য এককভাবে কখনোই লক্ষ্যপূরণে সার্থকতা পেতে পারে না। ফলে দলের সমস্ত সদস্যদের সহযোগিতা নিয়ে যৌথভাবে মূল লক্ষ্যপূরণ করতে হয়। এর থেকে খেলোয়াড়েরা সামাজিক ক্ষেত্রেও সহযোগী মনোভাব প্রদর্শন করে, যা জাতীয় সংহতিকে মজবুত করে।

(iv) বিভিন্ন শিবিরের মাধ্যমে সংহতিস্থাপন – খেলাধুলায় দক্ষতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে বিভিন্ন আবাসিক শিবির তৈরি হয়। এই শিবিরে বিভিন্ন  ধর্মের,  বর্ণের, জাতির খেলোয়াড়দের একসঙ্গে, একই ছাদের তলায়, একই পরিবেশে, একই কার্যক্রমের মধ্যে থাকতে হয়। এর ফলে একসঙ্গে থাকা, একসঙ্গে কাজ করা, খাওয়া, ঘুমানোর অভ্যেস তৈরি হয় যা জাতীয় সংহতিকে মজবুত করে।

(v) মনের দূষণ রোধ করে- বিভিন্ন খেলাধুলা, ব্রতচারী ও দুঃসাহসিক অভিযানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মধ্যে পারস্পরিক বন্ধুত্বপূর্ণ ও সৌহার্দ্যের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। খেলায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা  যেমন তাদের জয়কে বরণ করে নিতে পারে তেমনি প্রতিযোগিতায় পরাজিত হয়ে হাসিমুখে সেই পরাজয় মেনে নিতে পারে। একজন খেলোয়াড়ের কাছে জয় পরাজয়ের সমান গুরুত্ব অনুসরণ করে। তাইতো খেলার শেষে জয়ী ও পরাজিত একে অপরকে আলিঙ্গন করতে এগিয়ে আসে। এই বিরল দৃষ্টান্ত অন্য কোনো ক্ষেত্রেই দেখা যায় না।

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

গণিত

সপ্তম শ্রেণি

পূর্ণমান : ২০

Class 7 Model Activity Task Part 2 February 2022 Math

2022 ফেব্রুয়ারী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক Class 7 Part 2 গণিত

db097fb5c88f469c9b192463199e9a1e 0001 min
Class 7 Model Activity Task Part 2 February
db097fb5c88f469c9b192463199e9a1e 0002 min
Class 7 Model Activity Task Part 2 February
db097fb5c88f469c9b192463199e9a1e 0003 min
Class 7 Model Activity Task Part 2 February

প্রিয় ছাত্র- ছাত্রীরা উপরের February Class 7 Model Activity Task Part 2 এর পুরোটাই সম্পূর্ণ ভাবে প্রশ্ন উত্তর সহ আলোচনা করা হয়েছে।

তোমাদের এই February Class 7 Model Activity Task Part 2 কেমন লাগলো সেটা অবশ্যই কমেন্ট করে জানিও। কারণ তোমাদের মূল্যবান কমেন্ট আমাদের নতুন কাজ করতে উৎসাহিত করে।

February Class 7 Model Activity Task Part 2

সপ্তম শ্রেণীর সমস্ত বিষয়ের Pdf Book Download করতে নিচে ক্লিক করো :

আগের সপ্তম শ্রেণীর মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক :

January Model Activity Task Class 7 Part 1

Final Model Activity Task Class 7 Part 8

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button